ওয়ানপ্লাস 3T ফোন কিনতে চান? জেনে নিন, কেন কিনবেন এই ফোন....

Written by: Madhuraka Dasgupta

মাত্র একমাস আগে বাজারে এসেছে ওয়ানপ্লাস 3T ফোন। আর এখনও পর্যন্ত বাজারে যা খবর, এ বছরে লঞ্চ হওয়া সবথেকে ভালো অ্যানড্রয়েড ফোন হল এই ওয়ানপ্লাস 3T। আরও ভালো প্রসেসর, ভালো ইন্টারফেস এবং বড় ব্যাটারির সুবিধা নিয়ে বাজারে এসেছে এই নতুন ফোনটি।

ওয়ানপ্লাস 3T ফোন কিনতে চান? জেনে নিন, কেন কিনবেন এই ফোন....

যদি ওয়ানপ্লাস 3T ফোনের কোয়ালিটি, ফিচার আর ডিজাইন লক্ষ্য করা যায় তাহলে দেখা যাবে, আইফোন 7 বা গুগল পিক্সেলের সঙ্গে এর খুব একটা পার্থক্য নেই। যা যা ফিচার এই ওয়ান প্লাস 3T ফোনে পাওয়া যাচ্ছে, সেই তুলনায় ফোনের দাম অপেক্ষাকৃত সস্তা। এই মুহূর্তে বাজারে এই ফোনের আনুমানিক দাম ৩০ হাজার টাকা। যেখানে স্যামসাং, অ্যাপেল বা গুগলের গ্যালাক্সি S7 এজ, আইফোন 7 বা গুগল পিক্সেলের দাম অনেকটাই বেশি।

বাড়িতে বসেই এখন রিলায়েন্সের জিও সিম আপনার 'মুঠ্ঠি মে'.... সৌজন্যে 'হোম ডেলিভারি সার্ভিস'!

শুধু বড় ব্যাটারি বা ভালো প্রসেসরই নয়, এই ফোনের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরাটিও দুর্দান্ত। নতুন নতুন ফিচার এবং অন্যান্য কোয়ালিটির জন্য ইতিমধ্যেই  'ফ্ল্যাগশিপ কিলার'-এর তকমা পেয়েছে ওয়ানপ্লাস 3T ফোন।

শুধু গয়নাই নয়, এবার আপনার স্মার্টফোনও হোক হীরে আর সোনায় মোড়া...

স্মার্টফোন কেনার আগে কোন ফোন কিনবেন, কেন কিনবেন, কী কী নতুন ফিচার আর নতুন নতুন কী কী সুবিধা মিলবে ফোনে সেই সমস্ত বিষয়ে ভালো করে জেনে নিয়ে তবেই আপনি ফোন কেনেন। চলুন দেখে নেওয়া যাক, এই ওয়ানপ্লাস 3T ফোনটি আপনি কেন কিনবেন। এই ফোনটি কিনলে কী কী সুবিধা মিলতে পারে আপনার।

ফোনের দাম অপেক্ষাকৃত সস্তা
   

ফোনের দাম অপেক্ষাকৃত সস্তা

আপনাদের আগেই বলেছি যে বাজারে এই ফোনটির আনুমানিক দাম ৩০হাজার টাকা। এই ফোনে যা যা নতুন নতুন ফিচার রয়েছে, অন্যান্য ফোনের সঙ্গে যদি তুলনা করা হয়, তাহলে ওয়ানপ্লাস 3T ফোনের দাম অপেক্ষাকৃত কম।

5.50 ডিসপ্লে টাচস্ক্রিন, 1080*1920 পিক্সেলের সুবিধা রয়েছে এই ফোনে। এছাড়াও 16 মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা এবং সেলফি তোলার জন্য 16 মেগাপিক্সেল ফ্রন্টশ্যুটার ক্যামেরাও রয়েছে।

এবার যদি আমরা ফোনের স্পেশিফিকেশন নিয়ে কথা বলি, এই ফোনে 1.6GHz কোয়াড-কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন 821 প্রসেসর, 6 জিবি RAM এবং 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে। এছাড়াও 6.0.1 অ্যানড্রয়েড জেলি বিন রয়েছে। সুতরাং এই সমস্ত ফিচার লক্ষ্য করলে ওয়ানপ্লাস 3T ফোনের দাম সত্যিই কম।

নতুন স্মার্টফোন শ্রেষ্ঠ অনলাইন হত্যা জন্য এখানে ক্লিক করুন

ভালো সফটওয়্যার
   

ভালো সফটওয়্যার

প্রথমে আমাদের ধারণা ছিল যে, ওয়ানপ্লাস 3T ফোনে অক্সিজেন OS 3.5.3 (অ্যানড্রয়েড মার্সমেলোর ওপর বেস করা) রয়েছে। এই নতুন ইন্টারফেস এই নতুন ফোনে ব্যবহার করা হচ্ছে। অর্থাত ফোন কোম্পানি, এই ওয়ানপ্লাস 3T ফোনটিকে খাঁটি অ্যানড্রয়েড লুক দিতে চেয়েছে। কিন্তু পরে দেখা গেল, আমাদের এই ধারণা ভুল। যদিও লুকের দিক থেকে এই ফোনটি অ্যানড্রয়েডের মতো, কিন্তু আপনি চাইলে এই ফোনের ইন্টারফেসের রঙ পরিবর্তন করতে পারবেন। যদি আপনার মনে হয়, আপনার ফোনের ইন্টারফেসের রঙ খুবই একঘেঁয়ে, তাহলে আপনি চাইলেই এর রঙ উজ্জ্বল করতে পারবেন।

এছাড়াও যদি আপনার ওয়ানপ্লাস 3T ফোনে অ্যানড্রয়েড নৌগাতের কোনও উপাদান, যেমন নোটিফিকেশন বার বা নাইট মোড থাকে, সেগুলোও আপনি পরিবর্তন করতে পারবেন। তবে এ বছর শেষ না হলে ওয়ানপ্লাস 3T ফোনে অ্যানড্রয়েড নৌগাতের পাওয়া যাবেনা।

ভালো ব্যাটারি এবং কম সময়ে ফোন চার্জিং
   

ভালো ব্যাটারি এবং কম সময়ে ফোন চার্জিং

শুধু ভালো প্রসেসর বা ভালো সফটওয়ারই নয়, এই ফোনের ব্যাটারিও খুবই ভালো। 3400mAh নন-রিমুভেবল ব্যাটারি রয়েছে এই ফোনে। ওয়ানপ্লাস 3T ফোনে হয়তো পৃথিবীর সবথেকে ভালো ব্যাটারি ব্যাক-আপ নেই, কিন্তু এখনও পর্যন্ত এই ফোনটি যাঁরা ব্যবহার করেছেন, তাঁরা ফোনের ব্যাটারি নিয়ে খুবই সন্তুষ্ট।

এই ফোনে চার্জও হয় খুবই দ্রুত। মাত্র ৩০মিনিট এই ফোনটি চার্জে রাখলেই সারাদিন ধরে আপনার ফোন আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। অবশ্য যাঁরা সারাক্ষণ মোবাইল নিয়ে বসে থাকেন, তাঁদের ক্ষেত্রে এটা প্রযোজ্য নয়।

নেক্সাস 6P ফোনে চার্জ হতে যা সময় লাগে, তার থেকে দ্রুত চার্জ হয় এই ওয়ানপ্লাস 3T ফোনটি। গ্লেসিয়াল আইফোন 7 প্লাস থেকেও দ্বিগুণ দ্রুত চার্জ হয় এই ফোন। মাত্র ১ ঘণ্টা চার্জে বসালেই ফোনটি ফুলচার্জ হয়ে যায় আর ৩০ মিনিটে চার্জ হয় ৬৩%।

ব্যস, এই ওয়ানপ্লাস 3T ফোনের কী কী বৈশিষ্ট্য রয়েছে, সবই জানিয়ে দিলাম আপনাদের। কম দামে এতরকম ফিচারস যদি পেতে চান, তাহলে আর দেরি না করে এখনই কিনে ফেলুন এই ওয়ানপ্লাস 3T ফোনটি।

নতুন স্মার্টফোন শ্রেষ্ঠ অনলাইন হত্যা জন্য এখানে ক্লিক করুন



English summary
3 best reasons to buy the OnePlus 3T.
Please Wait while comments are loading...

Social Counting