এবার রিলায়েন্স জিও সিম অ্যাক্টিভেট করান মাত্র ১৫ মিনিটে!

By: Madhuraka Dasgupta

অপেক্ষার দিন এবার শেষ। এবার আপনার রিলায়েন্স জিও সিম অ্যাক্টিভেট করান মাত্র ১৫ মিনিটে। হ্যাঁ ঠিকই শুনছেন। আপনার বহু প্রতিক্ষিত রিলায়েন্স জিও সিম এবার চালু হয়ে যাবে মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যেই। আর তার জন্য আপনার আধার কার্ড না হলেও চলবে। অন্যান্য যে কোনও ভ্যালিড আই-ডি প্রুফ বা বৈধ প্রমাণপত্র দেখিয়ে আপনি আপনার জিও সিম অ্যাক্টিভেট করাতে পারবেন।

এবার রিলায়েন্স জিও সিম অ্যাক্টিভেট করান মাত্র ১৫ মিনিটে!

চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে বাজারে আসে রিলায়েন্স জিও। আর আসার সাথে সাথেই অভিনব সব অফারের জন্য রাতারাতি বাজারে হইচই ফেলে দেয় জিও। রিল্যায়েন্স ডিজিটাল, ডিজিটাল এক্সপ্রেস ও মিনি স্টোরগুলোর সামনে ভিড় বাড়তে থাকে সাধারণ মানুষের। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে মানুষ অপেক্ষা করতে শুরু করে একটি জিও 4G সিম পাওয়ার আশায়। কিন্তু শুরু থেকেই এই জিও সিমের জন্য বেশকিছু সমস্যার মধ্যে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে। সিম অ্যাক্টিভেশন থেকে শুরু করে নেটওয়ার্কের সমস্যা, একাধিক ঝামেলা পোহাতে হয় জিও সিম ব্যবহারকারীদের।

হোয়াটসঅ্যাপেও এবার সেট করুন মনের মতো রিংটোন, মেসেজটোন

আকর্ষণীয় সব অফারের জন্য যতই রিলায়েন্স জিও মানুষের মন কেড়ে নিক না কেন, এরজন্য কোম্পানিকেও সমস্যার মধ্যে পড়তে হয়। কল ড্রপ হওয়া থেকে শুরু করে কাস্টোমার সার্ভিস, অন্যান্য টেলিকম সংস্থাগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতায় একটু পিছিয়েই পড়ছিল জিও।

আপনার ফোনের ব্যাটারি আদৌ নিরাপদ তো? বুঝবেন কীভাবে....

প্রথম জিও-র সিম নিয়ে মানুষের যে সমস্যা শুরু হয় তা হল সিম অ্যাক্টিভেশন। একটা জিও সিম অ্যাক্টিভেট করাতে গেলে একাধিক টার্মস অ্যান্ড কন্ডিশনস ফলো করতে হত সাধারণ মানুষকে। আর কেউ যদি কোনও কারণে সেগুলো মানতে অক্ষম হতেন, তাহলে জিও-র আকর্ষণীয় অফার থেকে তাঁকে বঞ্চিত হতে হত।

জিও সিম ভেরিফিকেশন
   

জিও সিম ভেরিফিকেশন

জিও সিম অ্যাক্টিভেট করাতে গিয়েই সিম ব্যবহারকারীদের নানা সমস্যার মধ্যে পড়তে হত। এই টেলিকম কোম্পানি জিও সিম ব্যবহারকারীদের 'ভেরিফিকেশন' মেসেজ পাঠানো শুরু করেছেন। সেই 'ভেরিফিকেশন' মেসেজ যদি ঠিকমতো না পৌঁছয় তাহলে আপনার জিও সার্ভিস ডিসকানেক্টেড হয়ে যাবে।

নতুন স্মার্টফোন শ্রেষ্ঠ অনলাইন হত্যা জন্য এখানে ক্লিক করুন

ভেরিফিকেশন অ্যালার্টের কারণ
   

ভেরিফিকেশন অ্যালার্টের কারণ

শুরুতে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের কর্ণধার মুকেশ আম্বানি ঘোষণা করেছিলেন যে, জিও সিম অ্যাক্টিভেট করতে গেলে বৈধ প্রমাণ হিসেবে আধার কার্ড বাধ্যতামূলক। যদি কোনও সমস্যার কারণে সিম অ্যাক্টিভেট না হয়, তাহলে কাস্টোমারকে একটি ভেরিফিকেশন মেসেজ পাঠানো হবে।

আধার কার্ড ছাড়াই মিলবে জিও সিম
   

আধার কার্ড ছাড়াই মিলবে জিও সিম

এই সমস্ত ভেরিফিকেশনের সমস্যার জন্যই এবার রিলায়েন্স জিও চালু করছে ইনস্ট্যান্ট ভেরিফিকেশন ফেসিলিটি। এরফলে যে সমস্ত ব্যক্তির আধার কার্ড নেই, তাঁরা অন্যান্য যে কোনও বৈধ প্রমাণ দেখিয়ে জিও সিম তুলতে পারবেন। জিও-র ডকুমেন্ট স্ক্যানার অ্যাপে সেই বৈধ প্রমাণপত্র স্ক্যান করে পাঠাতেও পারবেন।

তবে কবে থেকে এবং কীভাবে এই অ্যাপ কাজ করবে, সেই নিয়ে সংস্থার তরফ থেকে এখনও কিছু জানানো হয়নি। তবে খুব শীঘ্রই এই বিষয়ে কিছু জানা যাবে, আর তারপর রিলায়েন্স ডিজিটাল স্টোরে গিয়ে লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে ডকুমেন্ট রি-ভেরিফিকেশনের সমস্যা থেকে মুক্ত হবেন সাধারণ মানুষ।

নতুন স্মার্টফোন শ্রেষ্ঠ অনলাইন হত্যা জন্য এখানে ক্লিক করুন



English summary
Here's how users can verify their documents, get instant verification and activate their Reliance Jio SIM in 15 min.
Please Wait while comments are loading...

Social Counting