ইনফিনিটি ডিসপ্লে, হাই-রেজ্যুলিউশন ক্যামেরা, অত্যাধুনিক সিকিউরিটি নিয়ে বাজারে এল স্যামসাং গ্যালাক্সি S8, গ্যালাক্সি S8 প্লাস

By: Madhuraka Dasgupta

অবশেষে বাজারে এসে গেল স্যামসাং গ্যালাক্সি S8 এবং গ্যালাক্সি S8 প্লাস। সম্প্রতি নিউ ইয়র্কে এই বহুপ্রতীক্ষিত স্মার্টফোন দুটি লঞ্চ করা হয়। বহুদিন ধরেই গ্যালাক্সির এই দুটি মডেল নিয়ে বাজারে নানা জল্পনা চলছিল। নতুন কি কি ফিচার্স রয়েছে, ফোনের লুক কেমন হবে, ক্যামেরা কোয়ালিটি কেমন হবে এই সব
নিয়েই আলোচনা চলছিল টেকস্যাভিদের মধ্যে। শেষমেশ সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটল। বেশকিছু অভিনব এবং চমকজাগানো ফিচার নিয়ে বাজারে এল স্যামসাং গ্যালাক্সি S8 এবং গ্যালাক্সি S8 প্লাস।

ইনফিনিটি ডিসপ্লে, হাই-রেজ্যুলিউশন ক্যামেরা, অত্যাধুনিক সিকিউরিটি নিয়ে

এই দুটি ফোনের লঞ্চ ইভেন্ট স্যামসাংয়ের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল কারণ এই দুটি ফোন থেকে কোম্পানির প্রত্যাশাও অনেকটাই বেশি। মোবাইল কমিউনিকেশনস বিজনেসের প্রেসিডেন্ট ডিজে কোহ এই অনুষ্ঠানে বলেন, ফিচার্স এবং ডিজাইনের দিক থেকে স্মার্টফোনের জগতে এক নতুন যুগের সূচনা করতে চলেছে গ্যালাক্সি S8 এবং গ্যালাক্সি S8 প্লাস। পাশাপাশি দাবি করেন, গ্রাহকদের ফোন সংক্রান্ত সমস্তরকম সুবিধা দেওয়ার পাশাপাশি স্যামস্যাং স্মার্টফোনের যে জনপ্রিয়তা, তা এক অন্য মাত্রায় নিয়ে যাবে এই দুটি ফোন।

নতুন ও অভিনব ফিচার্স নিয়ে বাজার মাতাতে আসছে স্যামসাং গ্যালাক্সি S8 এবং গ্যালাক্সি S8 প্লাস, জেনে নিন কি কি সুবিধা পাবেন এই 2টি ফোন থেকে

স্মার্টফোনের ফিচার্স এবং ডিজাইন নিয়ে যদি আলোচনা করা হয় তাহলে বলাই যায় যে বেশকিছু নতুন পালক যোগ হয়েছে স্যামস্যাংয়ের এই নতুন দুটি প্রোডাক্টের মুকুটে। ফিচার এবং স্পেসিফিকেশনের দিক থেকে বিচার করলে স্যামসাংয়ের এই ফ্ল্যাগশিপ সিরিজ সব সময়ই নতুন এক মাত্রা সৃষ্টি করে। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বেজেললেস পর্দা, হোম বাটনকে বিদায় জানানো, উন্নত সেলফি ক্যামেরা, অত্যাধুনিক সিকিউরিটি সমেত বেশকিছু ফিচার এরই মাঝে প্রযুক্তি দুনিয়ায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। আসুন দেখে নেওয়া যাক, নতুন কি কি ফিচার্স রয়েছে গ্যালাক্সি S8 এবং গ্যালাক্সি S8 প্লাস ফোনে।

ডিজাইন এবং ডিসপ্লে
   

ডিজাইন এবং ডিসপ্লে

এই স্মার্টফোন দুটি প্রথমেই আপনাকে মুগ্ধ করবে এর আকর্ষণীয় ডিসপ্লের জন্য। দুটি ফোনেই রয়েছে বেজেল-লেস ডিসপ্লে বা ধারহীন সরু ফ্রেম। স্যামসাংয়ের ভাষায়, 'ইনফিনিটি ডিসপ্লে'। ফোনের কার্ভড স্ক্রিন এবং রাউন্ডেড কর্ণার ফোনের লুক এবং ডিজাইনে অনেকটাই পরিবর্তন এনেছে। ফোনের সামনের দিকে ওপরে এবং নিচের সামান্য অংশ বাদ দিলে, প্রায় সম্পূর্ণভাগ জুড়ে রয়েছে সুপার অ্যামোলেডের পর্দা।

ফলে ফোনদুটির অ্যাসপেক্ট রেশিওতে পরিবর্তন এসেছে। ফোনের দুপাশে এবং নিচে কোনও অতিরিক্ত বর্ডার না থাকার ফলে ভিডিও বা ছবি দেখার জন্য তা আরও উপভোগ্য হবে। সেইসঙ্গে স্যামসাং এর গ্যালাক্সি সিরিজের মধ্যে এই দুটি প্রথম স্মার্টফোন যাতে ফিজিক্যাল হোম বাটন থাকছে না। ফোনের প্রায় সম্পূর্ণ জায়গা জুড়ে ডিসপ্লে থাকায় এতে প্রথাগত হোম বাটন নেই। হোম বাটনের পরিবর্তে ডিসপ্লের ওপরেই থাকছে ভার্চুয়াল হোম বাটন।

দুটি ফোনেরই সামনে এবং পেছনে সুরক্ষার জন্য থাকছে কর্নিং গোরিলা গ্লাস 5। এবার আলোচনা করা যাক, ফোনদুটির স্পেসিফিকেশন নিয়ে। স্যামসাং গ্যালাক্সি S8 ফোনে থাকছে 5.8 ইঞ্চি কোয়াড HD ডিসপ্লে + (1440*2960 পিক্সেলস) সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে। অন্যদিকে স্যামসাং গ্যালাক্সি S8 প্লাস ফোনে থাকছে 6.2 ইঞ্চি কোয়াড HD ডিসপ্লে + (1440*2960 পিক্সেলস) সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে। সেইসঙ্গে দুটি ফোনেই থাকছে জল এবং ধুলো প্রতিরোধক ক্ষমতা এবং IP68 সার্টিফিকেশন।

 

 কম্পিউটিং হার্ডওয়ার
   

কম্পিউটিং হার্ডওয়ার

স্যামসাং গ্যালাক্সি S8 ফোনে থাকছে অক্টা-কোর (2.3GHz কোয়াড + 1.7GHz কোয়াড), 64 বিট, 10nm প্রসেসর। অন্যদিকে স্যামসাং S8 গ্যালাক্সি প্লাস ফোনে থাকছে অক্টা-কোর (2.35GHz কোয়াড + 1.9GHz কোয়াড), 64 বিট, 10nm প্রসেসর। মাত্র 10 ন্যানোমিটার পাতলা কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন অক্টাকোর 835 প্রসেসর ফোনের স্পিড বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে। এত পাতলা এবং শক্তিশালী প্রসেসর এখন পর্যন্ত কোনও স্মার্টফোনে নেই। সেইসঙ্গে থাকছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন 835SoC অথবা এক্সিনোস 8895SoC।

দুটি ফোনে 4GB/6GB র‌্যাম এবং 64GB/128GB পর্যন্ত স্টোরেজ ক্যাপাসিটি হবে। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে মেমোরি 256GB পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। পাশাপাশি দুটি ফোনেই থাকবে অ্যান্ড্রয়েড নৌগাত 7.0।

 

 

ক্যামেরা
   

ক্যামেরা

গ্যালাক্সি সিরিজের স্মার্টফোনের ক্যামেরার ক্ষেত্রে সবসময়ই গুরুত্ব দেয় স্যামসাং। গ্যালাক্সি S8-র ক্ষেত্রেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এই দুটি ফোনের রেয়ার ক্যামেরা হবে ডুয়েল পিক্সেল সেন্সর সহ 12 মেগাপিক্সেলের। ক্যামেরা মেগাপিক্সেল না বাড়লেও ক্যামেরার রেজ্যুলিউশন বেশি থাকায় লো-লাইট ফটোগ্রাফির জন্য বেশ উপযোগী এই ক্যামেরা।

12 মেগাপিক্সেল ক্যামেরাতে রয়েছে OIS বা অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশনের সুবিধা, সঙ্গে F1.7 অ্যাপার্টার। অন্যদিকে 8 মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে দুটি ফোনেই। 8 মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরায় F1.7 লেন্সে রয়েছে অটোফোকাসের সুবিধা। এই ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে তোলা যাবে ওয়াইড অ্যাঙ্গেল সেলফিও। প্রো মোড, প্যানোরমা, স্লো মোশন, হাইপারল্যাপ্স, ফুড মোড সমেত আরও নানা টেকনিকে ছবি তোলা যায় এই দুটি ফোনের মাধ্যমে।

 

এই ফোনের ক্যামেরা 4K ভিডিও রেকর্ডিং সাপোর্ট করে। শাটার স্পিড, এক্সপোজার কমানো-বাড়ানো এবং হোয়াইট ব্যালেন্সের মতো অত্যাধুনিক প্রযুক্তিও রয়েছে দুটি ফোনেই।

 

ব্যাটারি
   

ব্যাটারি

গ্যালাক্সি S8 ফোনে থাকছে 3000mAh ব্যাটারি। কোম্পানির দাবি অনুযায়ী, AOD অন থাকা অবস্থায় এই ফোনটিতে একটানা 44 ঘণ্টা MP3 প্লে ব্যাক চালানো যাবে। AOD বন্ধ থাকলে একটানা 67 ঘণ্টা পর্যন্ত MP3 প্লে ব্যাক চালানো যাবে। ভিডিও প্লে ব্যাক চালানো যাবে একটানা 16 ঘণ্টা এবং একটানা 20 ঘণ্টা পর্যন্ত ফোনে কথা বলা যাবে। ওয়াই-ফাই থাকলে টানা প্রায় 14 ঘণ্টা, 3G কানেকশন থাকলে প্রায় 11 ঘণ্টা এবং 4G কানেকশন থাকলে প্রায় 12 ঘণ্টা ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে।

অন্যদিকে গ্যালাক্সি S8 প্লাস ফোনের ব্যাটারি হল 3500mAh। এই ফোনে AOD অন থাকলে একটানা 50 ঘণ্টা MP3 প্লে ব্যাক চালানো যাবে। AOD বন্ধ থাকলে একটানা 78 ঘণ্টা পর্যন্ত MP3 প্লে ব্যাক চালানো যাবে। ভিডিও প্লে ব্যাক চালানো যাবে একটানা 18 ঘণ্টা এবং একটানা 24 ঘণ্টা পর্যন্ত ফোনে কথা বলা যাবে। ওয়াই-ফাই থাকলে টানা প্রায় 15 ঘণ্টা, 3G কানেকশন থাকলে প্রায় 13 ঘণ্টা এবং 4G কানেকশন থাকলে প্রায় 15 ঘণ্টা ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে।

দুটি ফোনেই আছে ওয়্যারলেস চার্জারের সুবিধা। এছাড়া ফোন দুটি ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তিসম্পন্ন হওয়ায়, স্বাভাবিকের তুলনায় দ্রুত গতিতে চার্জ হবে ফোনটি।

 

কানেক্টিভিটি এবং সেন্সর
   

কানেক্টিভিটি এবং সেন্সর

স্যামসাংয়ের এই নতুন দুটি ফোনেই সিঙ্গল সিম এবং ডুয়েল সিম মডেল থাকছে। সঙ্গে থাকছে 4G LTE (ক্যাট. 16), ওয়াই-ফাই 802.11ac (2.4GHz, 5GHz), ব্লুটুথ v5.0, USB Type-C, NFC এবং GPS-র সুবিধা। নিরাপত্তার জন্য আছে বায়োমেট্রিক অথেনটিকেশন।

থাকছে আইরিশ স্ক্যানার, ফেস রিকগনিশন, ফিঙ্গার প্রিন্ট, অ্যাক্সেলারোমিটার, লাইট সেন্সর, ব্যারোমিটার, হার্ট রেট সেন্সর, ম্যাগনেটোমিটার এবং প্রক্সিমিটি সেন্সর।

আর প্রচলিত প্যাটার্ন ও পাসওয়ার্ড সিস্টেম তো আছেই। সেইসঙ্গে স্যামসাং পে সার্ভিসের সুবিধা পাওয়া যাবে এই দুটি ফোনে। এছাড়াও স্যামসাং গ্যালাক্সি S8 এবং S8 প্লাস ফোনে থাকছে নতুন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাপ বিক্সবি। এটি স্যামসাংয়ের নতুন AI অ্যাসিস্ট্যান্ট।

মূলত ফোনের বিভিন্ন ফিচার ব্যবহারবান্ধব করার দায়িত্বে থাকবে বিক্সবি। ভয়েস কমান্ডের সাহায্যে ফোন নিয়ন্ত্রণ সমেত নানা কাজ করা যাবে এই ফিচার ব্যবহার করে। রিমাইন্ডার ব্যবহার কিংবা ওয়াই-ফাইয়ের মাধ্যমে ফোনকে অন্য কোনও ডিভাইসের সঙ্গে যুক্ত করা যাবে বিক্সবির মাধ্যমে। ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্টটিকে চালু করতে হ্যান্ডসেট দুটির পাশে রাখা হয়েছে একটি বাটন। নতুন এই ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট দিয়ে ফটো গ্যালারি, মেসেজ, আবহাওয়া সমেত 10টি বিল্ট-ইন অ্যাপ কন্ঠের মাধ্যমেই চালানো যাবে।

 

সম্ভাব্য দাম
   

সম্ভাব্য দাম

দুটি ফোনের সম্ভাব্য দাম কী হতে পারে সেই নিয়ে এখনও পর্যন্ত স্যামসাংয়ের তরফ থেকে কিছু জানানো হয়নি। শীঘ্রই তা জানানো হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

যাইহোক, আগামী 21 এপ্রিল থেকে এই দুটি ফোন বাজারে পাওয়া যাবে বলে শোনা যাচ্ছে। পাওয়া যাবে, ব্ল্যাক, অর্কিড গ্রে, আর্কটিক সিলভার, কোরাল ব্লু এবং ম্যাপেল গোল্ড রঙে।

 

অন্যান্য ঘোষণা
   

অন্যান্য ঘোষণা

স্যামসাং ডেক্স নামে নতুন একটি ফিচার যুক্ত করা হয়েছে এই দুটি ফোনে। এরফলে চাইলে ফোনদুটি ডেস্কটপ হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে। প্লাগ অ্যান্ড প্লে-র সুবিধা আছে এতে। ডেক্স মূলত স্মার্টফোনের সঙ্গে ডেস্কটপ কম্পিউটারকে যুক্ত করার একটি মাধ্যম, যেখানে থাকছে USB-C সহ আরও কিছু পোর্ট।

ডেক্স টুলে ফোনটি রেখে HDMI কেবল মনিটরের সাথে যুক্ত করলেই ফোনটির স্ক্রিন বড় আকারে মনিটরে প্রদর্শিত হবে। মাউস এবং কিবোর্ড দিয়ে সহজেই এটি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এছাড়া 360 ডিগ্রি ভিডিও ধারণের জন্য একটি গিয়ার এনেছে স্যামসাং। এই ডিভাইস দিয়ে 4K মানের ভিডিও দেখা যাবে এবং ফেসবুকে লাইভও করা যাবে।

দুটি ফোনেই থাকছে থাকছে ব্লুটুথ মোশন সেন্সর কন্ট্রোলার। এছাড়া হেডফোন জ্যাক থাকায় হ্যান্ডসেট দুটিতে স্ট্যান্ডার্ড হেডফোন ব্যবহার করা যাবে।

 

Read more about:
English summary
Samsung Galaxy S8 and S8+ launched: Price, Specifications and more
Please Wait while comments are loading...

Social Counting

Bengali Gizbot আপনাকে নটিফিকেশন পাঠাতে চায়