অবসর সময়ে ইন্টারনেটকে কাজে লাগিয়ে কোটিপতি হলেন টেসলা ইঞ্জিনিয়ার

Posted By: Satyaki Bhattacharyya

    অনেকেই বলেন আপনি যদি কিছু বিশ্বাস করেন আপনি তা ১০০% নিশ্চয়তার সাথে করতে পারবেন। সিসুন লি বলেন “আমি মনে করি এটা একটা ফালতু কথা।” আর নিজের স্টার্ট আপ এর প্রথম এক বছর তিনি টেসলা কোম্পানির প্রোডাক্ট ম্যানেজার ছিলেন। তৃতীয় বছর তিনি চাকরি ছেড়ে দিয়ে নিজের প্রোডাক্টে মননিবেশ করেন। তিনি যখন দক্ষিন কোরিয়াতে ছিলেন তখন এক ওষুধ তাকে বাজে হ্যাংওভার থেকে বাঁচিয়েছিল। আর এই প্রোডাক্ট আমেরিকায় জনপ্রিয় করাই ছিল তার লক্ষ্য। এরপরে তার কোম্পানি ৩.৩ কোটি টাকায় পৌঁছে যায়। আসুন দেখে নি কীভাবে এই কাজ করলেন লি?

    অবসর সময়ে ইন্টারনেটকে কাজে লাগিয়ে কোটিপতি হলেন টেসলা ইঞ্জিনিয়ার

    ১। রিসার্চ

    গুগল করে প্রথমে এই প্রোডাক্টের গোপন উপাদান জেনে নেয় তিনি। ইন্টারনেটে তিনি জানতে পারেন জাপানের রাইসিন গাছের dihydromyricetin (DHM) ব্যাবহার হয় এই প্রোডাক্টে। এরপরে তিনি DHM গবেষক জিং লিয়াং এর সাথে যোগাযোগ করেন। তার কাছ থেকেই সব তথ্য যোগাড় করেন তিনি।

    ২। টেস্ট

    আমেরিকায় হ্যাঙ্গোভারের বাজারে যথেষ্ট চাহিদা আছে কী না জানার জন্য একটি ওয়েবসাঈত তৈরী করেন তিনি। এরপরে তাতে ভুয়ো প্রোডাক্ট দেখিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করা শুরু করেন তিনি। কয়েকদিনের মধ্যেই ভালো অর্ডার পেতে শুরু করেন তিনি। তখন সেই গ্রাহকদের টাকা ফিরিয়ে দিয়ে এই প্রোডাক্ট বানানোর কাজ শশুরু করেন লি।

    ৩। কানেক্ট

    এক ফ্রিলান্স ওয়েবসাইটে লি পোস্ট করেন যে কেউ যদি তাকে দক্ষিন কোরিয়ায় কোন হ্যাংওভার ড্রিঙ্ক তৈরীর কারখানার সাথে যোগাযোগ করিয়ে দেন তবে তাকে ৩০ মার্কিন ডলার দেবেন লি। এরপরে তিনি স্যাম্পেল ব্যাচ অর্ডার করেন। আর বিভিন্ন লোকজনকে এই প্রোডাক্ট ট্রাই করতে বলেন। এদের মধ্যেই একজন প্রোডাক্ট হান্ট নামের প্ল্যাটফর্মে এই ড্রিঙ্ক দিয়ে দেন। তখন এক সবাইকে সমাজের অংশীদার হওয়ার আহ্বান জানান লি। আর সকলে সেই প্রজেক্টে লগ্নি করতে শুরু করেন।

    ৪। অঙ্গীকার

    এরপরে লগ্নীকারীদের কাছ থেকে ৪৫০০০০ মার্কিন ডলার জোগার করেন লি। তখন তিনি এই প্রোডাক্টের নাম রাখেন “মর্নিং রিকভারি”।

    ৫। ক্রাউডফান্ডিং

    এই সময় পর্যন্ত ১৫০০০ ডলার খরচ করে ফেলেছিলেন লি। কিন্তু সেই সময় আরও টাকার প্রয়োজন হয় তার। আর টাকা তোলার জন্য ক্রাউডফান্ডিং এর সাহায্য নেন লি।

    ৬। বিক্রি

    অনলাইনে এই ড্রিঙ্কের মার্কেটিং শুরু করেন লি। ৩.৪ আউন্সের ৬টি বোতলের দাম রাখা হয় ২৯.৯৫ মার্কিন ডলার। গত অক্টোবরে ১ মিলিয়ান ডলার মূল্যের প্রোডাক্ট বিক্রি করেছেন লি। এখন পাব, মদের দোকানেও এই প্রোডাক্ট বিক্রি করতে চান লি। তবে খুব শিঘ্রই রেড বুল বা কোকাকোলার মতো রাঘব বোয়াল কোম্পানিগুলি তার বাজার নষ্ট করেব দেবে বলে ভয় পাচ্ছেন লি।

    কীভাবে ইউটিউবে বন্ধুদের সাথে চ্যাট করবেন?

    Read more about:
    English summary
    Sisun Lee just raised $8 million for his hangover drink company, now valued at $33 million.

    Bengali Gizbot আপনাকে নটিফিকেশন পাঠাতে চায়

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Gizbot sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Gizbot website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more