অনলাইনে যৌনতার প্রতিশ্রুতি, ৯০ হাজার ভুয়ো অ্যাকাউন্ট বন্ধ করল ট্যুইটার

By: Sabyasachi Chakraborty

ট্যুইটার ইউজারদের কাছে মাঝেমধ্যেই আসে এমনতর রিক্যুয়েস্ট। অনলাইনে সেক্স টেক্স, একটু চ্যাট, ভিডিও এইসব। কিন্তু দেখা গেছে, বেশিরভাগ অ্যাকাউন্টই ফেক। আর এই সব অ্যাকাউন্ট নিয়ে চলছিল ফেক বটনেট ক্যাম্পেইন। এই ভুয়ো অ্যাকাউন্ট এবং বটনেট ক্যাম্পেইন নিয়ে একটি মার্কিন সংস্থা ট্যুইটারকে সতর্ক করেছিল। তার ভিত্তিতেই প্রায় ৯০ হাজার ভুয়ো অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিল ট্যুইটার।

অনলাইনে যৌনতার প্রতিশ্রুতি, ৯০ হাজার ভুয়ো অ্যাকাউন্ট বন্ধ করল ট্যুইটার

এমনতর বটনেট ক্যাম্পেইনকে বলা হয় SIREN। সোশ্যাল মিডিয়া থ্রেট ডিটেকশন নিয়ে কাজ করা বাল্টিমোরের সিকিওরিটি ফার্ম ZeroFox-এর নজরেই প্রথম আসে এই SIREN ক্যাম্পেইনের বিষয়টি।

ZeroFox একটি ব্লগ পোস্টে জানায়, যদ্দুর জানা আছে এই বটনেট ক্যাম্পেইন হল সোশ্যাল মিডিয়ায় সবথেকে বড়সড় ভুয়ো ক্যাম্পেইন।

ZeroFox-এর কম্পিউটার ভিশন এবং ন্যাচারাল ল্যাঙ্গুয়েজ প্রসেসিং আলগোরিদমস প্রায় ৮৫ লক্ষ এই ধরণের ট্যুইটের হদিশ পেয়েছে। খোঁজ মিলেছে SIREN ক্যাম্পেইনের সঙ্গে জড়িত ৯০ হাজার অ্যাকাউন্টের।

ZeroFox জানিয়েছে, ক্যাম্পেইন হিসেবে SIREN বেশ সফল। এখনও পর্যন্ত ভিকটিমদের কাছ থেকে প্রায় ৩ কোটি ক্লিক হাসিল করে নিয়েছে সে। এই ডেটা আরামসে জেনে ফেলা যায় কারণ বটনেটকে সহজেই ট্র্যাক করা যায়। ইউআরএল গুলিও গুগল থেকে ছোট করা হয় এখানে।

ZeroFox তাদের এই চাঞ্চল্যকর খোঁজ গত সপ্তাহেই ট্যুইটার আর গুগলের সিকিওরিটি টিমের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছে। তারাও চটজলদি ওই ধরণের লিঙ্ক আর অ্যাকাউন্টকে হঠিয়ে দিতে পেরেছে। ফলে ভালরকম ধাক্কা দেওয়া গেছে SIREN-কে।

জানা গেছে, ৯০ হাজার অ্যাকাউন্টগুলির প্রত্যেকটির প্রোফাইল পিকচারেই মহিলাদের ছবি দেওয়া রয়েছে, রয়েছে মহিলাদের নাম।

অ্যাকাউন্টগুলি ভিকটিমদের করা ট্যুইটগুলিকে কোট করে সরাসরি তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। আর নয়ত পিনড ট্যুইটের মাধ্যমে সরাসরি তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

অ্যাকাউন্টগুলির ট্যুইটগুলি যৌনতায় ভরপুর। আধ ভাঙা ইংরেজিতেই ট্যুইটগুলি থাকে বেশিরভাগ। লেখা থাকে "you want to meet with me?" অথবা "Push, don't be shy"। এইসব লেখাপত্তর আর ছবির চক্করে গিয়ে অনেকেই ক্লিক করে বসতেন তাতে। ক্লিক করলেই পরের পর লিঙ্ক।

আর এই বিভিন্ন লিঙ্কে ক্লিকের পর ক্লিক করতে করতে পৌঁছে যাওয়া যেত একটা ওয়েব লিঙ্কে। তাতে ওয়েবক্যাম, ফেক ডেটিং ওয়েবসাইট বা পর্নগ্রাফির সাবস্ক্রিপশনের জন্য ইউজারদের সাইন আপ করতে হত।

আইনত বৈধ হলেও এই ধরণের ওয়েবসাইটগুলিকে স্ক্যাম হিসেবেই ধরা হয় বলে ZeroFox জানিয়েছে। অনেক ওয়েবসাইটেই দাবি করা থাকে, এই সাইটের মালিকই বেশিরভাগ প্রোফাইলেরও মালিক।

বেশিরভাগ প্রোফাইলেই মহিলাদের নাম নিয়ে নগ্ন বা অর্ধনগ্ন ছবি দেওয়া থাকে।

SIREN অ্যাক্টররা তো বটেই, ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদেরও বেশিরভাগই দাবি করে থাকে, তারা রাশিয়ান।

ZeroFox-এর দাবি, দুর্বল ইংরাজি, লেখার হরফ আর ম্যাগনিচিউড দেখে আন্দাজ করাই যায়, এরা বেশিরভাগই পূর্ব ইউরোপের।

SIREN নামটি বটনেট ধার নিয়েছে গ্রিক উপকথা থেকে। সিরেন গ্রিক নাবিকদের গান গেয়ে, নানান ছলাকলা করে, মৃত্যুর পথে নিয়ে যেত।



Read more about:
English summary
Dubbed as 'SIREN', the fake botnet campaign promising online sex was discovered by ZeroFOX on Twitter.
Please Wait while comments are loading...

Social Counting