৩০শে জুন থেকে সিমবিয়ান আর ব্ল্যাকবেরি ওএস ফোনে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ।

By: Satyaki Bhattacharyya

পকেটে নিয়ে ঘুরছেন পুরোনো নোকিয়া সিমবিয়ান বা আদ্দিকালের ব্ল্যাকবেরি? ওদিকে হোয়াটসঅ্যাপ ছাড়া একটা দিনও চলে না? তবে হয়তো সময় এসেছে আপনার এতদিনের সাধের ফোনকে বিদায় জানানোর। ৩০শে জুন থেকে সিমবিয়ান আর ব্ল্যাকবেরি ওএস এ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ। গত সপ্তাহে আনুষ্ঠানিকভাবে এই কথা জানিয়ে দেয় ফেসবুকের এই কোম্পানিটি।

৩০শে জুন থেকে সিমবিয়ান আর ব্ল্যাকবেরি ওএস ফোনে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে

গত বছরই সিলিকন ভ্যালির এই কোম্পানিটি জানিয়েছিলো অনেকগুলি অপারেটিং সিস্টেমে বন্ধ হয়ে যাবে তাদের পরিষেবা। সেই মতো গত ডিসেম্বর ২০১৭ তেই অ্যানড্রয়েড ২.২ ফ্রোয়ো, আই ওএস ৬ আর উএন্ডোজ ফোন ৭ থেকে বিদায় নিয়েছিলো হোয়াটসঅ্যাপ। ৬ মাস পর এবার কোপ পড়তে চলেছে সিমবিয়ান এস ৪০, এস ৬০ আর ব্ল্যাকবেরি ওএস এর উপর।

এই মাসের পর থেকেই ব্ল্যাকবেরি ওএস, ব্ল্যাকবেরি ১০, নোকিয়া এস ৪০, নোকিয়া এস ৬০ প্ল্যাটফর্মের সব ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ বন্ধ বন্ধ করে দেবে তাদের পরিষেবা। আপনি যদি এখনো এই ফোনগুলোর কোনোটা ব্যাবহার করেন তবে ৩০শে জুনের পর হয় আপনাকে বদলাতে হবে আপনার ফোন অথবা খুঁজে ফেলতে হবে নতুন হোয়াটসঅ্যাপ এর বিকল্প।

যদিও নিজেদের সাপোর্ট পেজ এর কারণ ব্যাক্ষা করতে ভোলেনি কোম্পানিটি। হোয়াটসঅ্যাপ এর তারফে জানানো হয়েছে “আমরা আগামী দিনে অ্যাপে যেসব ফিচার আনার কথা ভাবছি, এই অপারেটিং সিস্টেমগুলিতে সেইগুলি করা সম্ভব না। শুধুমাত্র অ্যানড্রয়েড ভার্সান ২.৩.৩ বা তার বেশী আথবা আই অএস ৭ বা তার বেশী আর উইন্ডোজ ফোন ৮ বা তার বেশী ফোনগুলিতেই এখন থেকে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যাবহার করা যাবে।“ এছাড়াও হোয়াটসঅ্যাপের তরফে জানানো হয়েছে নিজের ফোনটিকে লেটেস্ট অপারেটিং সিস্টেমে আপডেট করে নিতে।

গত বেশ কয়েক বছরে বাজারে নিজেদের যায়গা হারিয়েছে এক সময় বাজার কাপানো নোকিয়া আর ব্ল্যাকবেরি। এখন বাজারের সেই জায়গা পুরন করেছে অ্যানড্রয়েড আথবা আইওএস অপারেটিং সিস্টেমের ফোনগুলি। তাই কালের নিয়ম মেনেই হোয়াটসঅ্যাপ তাদের সাপোর্ট বন্ধ করে দিচ্ছে নোকিয়া সিমবিয়ান আর ব্ল্যাকবেরি অএস ফোনে।

English summary
WhatsApp will not be supported by old software platforms like BlackBerry OS and Nokia Symbian OS from June 30.
Please Wait while comments are loading...

Social Counting