‘গেমিং ডিসঅর্ডার’ কে মানসিক রোগের স্বীকৃতি দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Posted By: Gizbot Bureau

    কম্পিউটারে গেম খেলা এক অদ্ভুত নেশা। গত ডিসেম্বর মাসে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছিল 'গেমিং ডিসঅর্ডার’ কে ২০১৮ সালের ইন্টারন্যাশানাল ক্লাসিফিকেশান অফ ডিজিস (ICD) এর আওতায় আনার কাজ শুরু হয়েছে। আর এবার ICD এর একাদশ সংস্করনে 'গেমিং ডিসঅর্ডার’ কে মানসিক রোগের স্বীকৃতি দিল বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থা। এর সাথেই এই মানসিক রোগের সংজ্ঞা জানিয়েছে বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থা।

    ‘গেমিং ডিসঅর্ডার’ কে মানসিক রোগের স্বীকৃতি দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

    * গেমিং এর উপরে কোন নিয়ন্ত্রন না থাকা (যেমন সূচনা, ফ্রিকোয়েন্সি, তীব্রতা, সময়কাল, পরিসমাপ্তি, প্রসঙ্গ)

    * জীবনের অন্য কাজ ভুলে গেমিং কে জীবনে অগ্রাধিকার দেওয়া।

    * নেতিবাচক ফলাফল সত্বেও গেম খেলা চালিয়ে যাওয়া।

    ICD-11 এ জানানো হয়েছে, 'গেমিং ডিসঅর্ডার’ থাকলে সেই ব্যাক্তির সামাজিক, পারিবারিক ও ব্যাক্তিগত জীবনে একাধিক পরিবর্তন আসে।

    নতুন এই রোগ লক্ষণ প্রথম নির্ণয় করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডাঃ ভ্লাদিমির পজনিক। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “আমি কোন নজির তৈরী করছি না। মানুষের ব্যক্তিগত ও সামাজিক জীবনের পরিবরতনের ফলেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে WHO।”

    যদিও চিকিৎসা পেশাইয় যুক্ত বেশিরভাগ ব্যাক্তি 'গেমিং ডিসঅর্ডার’ এর বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ডে এই মানসিক রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। যদিও কোন চিকিৎসার মাধ্যমে এই রোগ সারবে সেই বিষয়ে এখনো নিশ্চিত নন ডাক্তাররা।

    এবার 6GB ভেরিয়েন্টের পাওয়া যাবে Asus Zenfone Max Pro 1

    তবে এখানে জেনে রাখা প্রয়োজন ICD 11 এখনো চূড়ান্ত হয়নি। সম্প্রতি তৈরী এই ড্যাফট সামনের বছরের আগে জমা দেওয়া হবে না। এই ড্রাফটের অনলাইন ভার্সানে জানানো হয়েছে, 'এই প্ল্যাটফর্ফের বিষয়বস্তু ক্রমশ বদল হতে থাকবে।’

    সম্প্রতি নয় বছরের এক শিশু গেম খেলা বন্ধ করতে না পারায় তাবে রিহ্যাবে পাঠানো হয়েছিল। আর এর পর থেকেই আবার বিশ্বজুড়ে গেমিং নিয়ে মানসিক রোগের সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

    Read more about:
    English summary
    The updated 11th edition of the ICD has been released, and with it comes the official definition of gaming addiction as a mental health disorder.

    Bengali Gizbot আপনাকে নটিফিকেশন পাঠাতে চায়

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Gizbot sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Gizbot website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more